কুমি’ল্লার মে’য়েকে ছে’লের বৌ করা নিয়ে যা ব’ললেন মৌ’সুমী

মৌ,সুমী-ওম’র সানি বিয়ে করেছিলেন ১৯৯৫ সালের ৪ মা’র্চ। কাউকে না জানিয়ে হুট করে বিয়ে কর,লেও পাঁচ মাস পর ২ আগ,স্ট আয়োজন করেছিলেন বিবা,হোত্ত,র সং,বর্ধ’না অনু,ষ্ঠা,নের। তাঁদের বিয়ের ২৫ বছর পেরিয়েছে।

বিবাহ,বার্ষি,কী’ এলে আজও তাঁদের মনে হয়, এই তো সেদিন বিয়ে করলাম। কবে, কখন এতটা সময় পার হয়ে গেল! এক মে’য়ে ও এক ছে’লের সু’খের সং,সার তাদের। প’রস্প,রকে ভালোবেসে। সু’খের সং,সার নিয়ে এই শি,ল্পী দম্পতি বসবাস করেন রাজ,ধানীর গু,লশানে।

আর সেই সংসারে এবার যোগ হচ্ছে নতুন অ’তিথি। সপ্তা,হ দুয়েক পর মৌসুমী–সানির ছে’লে ফারদীনের বিয়ে। ছে’লের জন্য কানাডাপ্রবাসী এক অনি,ন্দ্য রূপবতী তরু,ণীকে পছ,ন্দ করেছেন এই তারকা দম্প,তি। তাদের ছে’লের হবু বউয়ের নাম আয়েশা।

ছে’লের বিয়ে প্রস’ঙ্গে মৌসুমী জানান, আগামী ৫ এপ্রিল ঢাকার একটি পাঁচতারা হোটেলে বর–কনের গায়েহলুদ। ৯ এপ্রিল আরেক পাঁচতারা হোটেলে বিবা,হোত্তর সং,বর্ধ’না অনু,ষ্ঠান। ছে’লের বিয়ে নিয়ে ভীষণ ব্য,স্ত সময় পার করছেন মৌসুমী–ওম’র সানি।

তাঁদের ছে’লে ফারদীন কয়েক বছর আগে থেকে নাট’ক–সিনেমা পরিচালনা শুরু করেছিলেন। তিনি ‘ডেস্টি,নেশন’ নামে একটি টেলিছবি নির্মা,ণ করেছেন। তা ছাড়া বেশ কয়েকটি স্ব,ল্প,দৈ,র্ঘ্য চলচ্চি,ত্রও নির্মা,ণ করেন তিনি। পাশা,পাশি উদ্যো,ক্তা হিসেবে এগিয়ে যাওয়ার চে’ষ্টা করছেন।

এদিকে মৌসুমী জানান, গায়েহলুদ ও বিবাহোত্তর সং,বর্ধ’নার মাঝামাঝি সময়ে ফারদীন ও আয়ে,শার আকদ সম্প,ন্ন হবে। ছে’লে প্রস’ঙ্গে মৌসুমী বলেন, ‘সময়ের স’ঙ্গে নিজেকে বদলে নিতে পারাটা সবচেয়ে বড় স্মা’র্টনেস। আমাদের ছে’লে বড় হচ্ছে।

তাঁর জীবন গুছিয়ে দেওয়াটা আমাদের দায়ি,ত্ব। সে নিজের মতো করে নানা রকম কাজ করছে। তা ছাড়া জীব,নটা গু,ছিয়ে দিতে একদিন না একদিন তাঁকে বিয়েও করাতে হবে। ছে’লের ভালো লাগার মতো একটা মে’য়েকে বউ হিসেবে পেলে তো মা হিসেবে নিজেরও ভালো লাগবে।

মে’য়েটা শু,ধু আমাদের স’ন্তা,নের নয়, আমাদেরও দারু,ণ পছ,ন্দ হয়েছে। ওরা দুজন যেন ভালো থাকে, মা–বাবা হিসেবে আমাদের সেই চে,ষ্টা,ই থাকবে।’ মৌসুমীর ছে’লের বৌ জ’ন্ম,সূত্রে কুমি,ল্লা,র। তবে মা–বাবার স’ঙ্গে কানাডায় থাকেন।

তার পড়াশোনা ও বেড়ে ওঠা সেখানেই। মাস কয়েক আগে ফারদীনের স’ঙ্গে আয়েশার পরিচয় হয়। একপ,র্যায়ে তাদের মধ্যে তৈরি হয় ব,ন্ধু,ত্ব, এরপর ভালো লাগা। সে কথা দুই পরিবারের স’ঙ্গে ভাগাভাগি করেন দুজন। এরপর পারি,বারিক আলোচনার ভিত্তিতে বিয়ের দিনক্ষ,ণ ঠিক করা হয়